Home / নারী / রূপচর্চা / ব্রণের দাগ মুক্ত করে উজ্জ্বল ত্বক পাওয়ার উপায়

ব্রণের দাগ মুক্ত করে উজ্জ্বল ত্বক পাওয়ার উপায়

সব মেয়েই চায় উজ্জ্বল ত্বকের ঝিলিক। কিন্তু চাওয়ার সঙ্গে পাওয়ার মিল থাকে না অধিকাংশ মেয়েরই। নামী-দামি ব্র্যান্ডের প্রসাধনী নিয়মিত ব্যবহার করেও মুখে থাকা ব্রণের দাগ দূর করা সম্ভব হচ্ছে না। অথচ আপনি খুব সহজেই হাতের কাছে পাওয়া উপাদান দিয়েই আপনার ত্বকের যত্ন নেয়া সম্ভব। এসব উপাদানের সঠিক ব্যবহারে আপনি পেতে পারেন ব্রণের দাগ মুক্ত নরম, কোমল, সুন্দর ত্বক। আর তাই নীচে দেওয়া উপাদান গুলো ব্যবহার করে কাজ করুণঃ

০১) শশার রস ও সামান্য চালের গুঁড়া, এক চামচ মধুতে মিশিয়ে নিন। এটি স্ক্রাবাবের  কাজ করবে। সপ্তাহে মাত্র দুই দিন এই প্যাক ব্যবহার করলেই ত্বক পরিষ্কার হবে। ব্ল্যাকহেডস ও হোয়াইটহেডস দূর হয়ে যাবে। খেয়াল রাখতে হবে, ব্রণ থাকলে স্ক্রাব করা যাবে না।

০২) কাঁচা হলুদ এবং চন্দন কাঠের গুঁড়ো ব্রণের জন্য খুবই কার্যকর উপাদান। সমপরিমাণ বাটা কাঁচা হলুদ এবং চন্দন কাঠের গুঁড়ো আর পরিমাণ মতো পানি মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুণ। মিশ্রণটি এরপর ব্রণ আক্রান্ত জায়গায় লাগিয়ে রেখে দিন।কিছুক্ষণ পর তা শুকিয়ে গেলে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এই মিশ্রণটি শুধুমাত্র ব্রণদূর করার কাজ করে না বরং ব্রণের দাগ দূর করতেও সাহায্য করে।

০৩) আপেল ও মধুর মিশ্রণ হচ্ছে ব্রণের দাগ দূর করার সবচেয়ে জনপ্রিয় ঘরোয়া পদ্ধতি। প্রথমে আপেলের পেস্ট তৈরি করে তাতে ৪ থেকে ৬ ফোটা মধু মেশিয়ে নিন। এই মিশ্রণটি মুখে লাগিয়ে কিছুক্ষণ অপেক্ষা করুণ এবং এরপর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এটি ত্বকের টানটান ভাব বজায় রাখে এবং মুখের রঙ উজ্জ্বল করে তুলে। প্রতি সপ্তাহে ৫ থেকে ৬ বার এটি ব্যবহার করতে পারেন। এটি ব্যবহারে আপনি কয়েক দিনের মধ্যে পরিবর্তনটা অনুভব করতে পারবেন।

০৪) ব্রণের জন্য তুলসি পাতার রস খুব উপকারী। শুধুমাত্র তুলসি পাতার রস ব্রণ আক্রান্ত অংশে লাগিয়ে রেখে শুকিয়ে যাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। এরপর কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলতে হবে।

০৫) প্রথমে চন্দন কাঠের গুড়োঁর সঙ্গে গোলাপ জল মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন । তাঁরপর তাতে ২ থেকে ৩ ফোটা লেবুর রস মিশাণ। গোলাপ জলের পরিবর্তে আপনি মধুও ব্যবহার করতে পারেন। এই মিশ্রণ আপনার ব্রণের দাগ দূর করতে সাহায্য করবে। সপ্তাহে ৩ থেকে ৪ দিন ব্যবহার করতে পারলে ভালো ফল পাওয়া যাবে।

০৬) নিয়মিত গোলাপ জলের ব্যবহারে ব্রণের দাগ কমে যায়। দারুচিনি গুঁড়ার সঙ্গে গোলাপজল মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। এই পেস্ট ব্রণের ওপর লাগিয়ে ২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। এতে ব্রণের সংক্রমণ, চুলকানি এবং ব্যথা অনেকটাই কমে যাবে।

About নুসরাত জাহান

হাই, আমি নুসরাত জাহান। আমি মানুষকে আনন্দ ও বিনোদন দিতে ভালো বাসি। নিজেও সারাক্ষণ আনন্দ ফূর্তিতে সকলের সাথে থাকতে পছন্দ করি। আমি ব্লগে নতুন। আশা করি আপনার আমার সাথে থাকবেন। এবং আপনাদের নিজস্ব পরামর্শ দিয়ে আমাকে সাহায্য করবেন। চলার পথের ভুল গুলো ধরিয়ে দিবেন। আমি সেটা শুধরানোর চেষ্টা করবো। ধন্যবান।

Check Also

মেছতার দাগ দূর করার কিছু ঘরোয়া উপায়

মেছতার যাতনা ভোগ করে থাকেন অনেকেই। মুখে মেছতা হলে মুখের সৌন্দর্য নষ্ট হয়ে যায় এবং …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *