Home / শিশুদের জন্য আমরা / শিশুদের জন্য গল্প / শিশুদের জন্য মজার গল্প : যুদ্ধ ছাড়াই রাজাকে পরাজয়

শিশুদের জন্য মজার গল্প : যুদ্ধ ছাড়াই রাজাকে পরাজয়

শিশুদের গল্পএক দেশে ছিল এক বীর রাজা ছিল৷ রাজা ছিল অনেক শক্তিধর৷ কেউ তাকে যুদ্ধে হারাতে পারত না৷ তার চারপাশের দেশের রাজারা পড়ল মহা চিন্তায়। কোনদিন না সে আবার তাদের দেশ যুদ্ধে করে নিয়ে নেয়৷

তাই সেসব রাজারা অনেক ভেবে চিনতে একটা উপায় বের করলো ৷ তারা ডেরা পিটিয়ে পুরস্কার ঘোষণা করলো – যে এই বীর রাজাকে যুদ্ধে হারাতে পারবে তাকে দেয়া হবে অর্ধেক রাজত্ব আর রাজকন্যা যদি রাজী হয় তবে রাজকন্যার সঙ্গে বীরযুদ্ধাকে বিয়ে  দেওয়া হবে৷ কিন্তু কেউই সাহস করলো না বীর রাজার সঙ্গে যুদ্ধ করতে। কারণ যুদ্ধে গেলেই নিশ্চিত মৃত্যু হবে৷ সেসব রাজারা হতাশ, কাউকেই পাওয়া যাচ্ছে না বীর রাজার সঙ্গে যুদ্ধ করার জন্য৷

কিছুদিন পর এক রাধুনী এলো রাজার দরবারে। বলল, “আমি বীর রাজাকে হারাব”৷ সব রাজাতো অবাক! যেখানে বীর সেনাপতিরা ভয় পায় সেখানে এক রাধুনী হারাবে বীর রাজাকে! এ টা কি ভাবে সম্ভব?  রাধুনী বলল, “আমকে বিশ্বাস করুন মহারাজ, আমিই পারব বীর রাজাকে হারাতে৷ আমার উপর পূর্ণ ভরসা রাখতে পারেন৷”

রাজারা বললেন, “ঠিক আছে, তুমি যখন এত করে বলছ, তখন তোমাকে একবার সুযোগ দেওয়া হলো, চেষ্টা করে দেখো হারাতে পার কি না ৷”

রাজার অনুমতি পেয়ে রাধুনী বীর রাজার দেশে গেল ৷ সেখানে রাজার দরবারে গিয়ে বলল, “ হুজুর, আমায় আপনার রান্নার দায়িত্ব দিন, আমি অনেক মজার মজার রান্না জানি৷ আপনি এমন মজার রান্না আপনার জীবনেও খাননি৷”

উমমম …..। রাধুনীর কথা শুনে  বীর রাজা জিভে পানি চলে এলো ৷ সে বলল, “ঠিক আছে, এখনি তুমি কাজে লেগে যাও৷ “রাধুনী রাজার জন্য দিন রাত মজার মজার সব খাবার বানাতে শুরু করলো”। খাটি ঘী এর পোলাও, গরুর কাচ্চি বিরিয়ানী, খাসীর রেজালা, হরেক রকম মিষ্টি , চকলেট কেক, ফ্রেন্চ ফ্রাই, রং বেরঙের ড্রিঙ্কস, বীফ বার্গার সহ আরো কত কি ৷

রাজা শাক সবজী খাওয়া একেবারেই ছেড়ে দিল৷ পানির বদলে সব মজার মজার ড্রিঙ্কস খেতে শুরু করলো ৷ ধীরে ধীরে রাজার ভুরি বেড়ে গেল, চর্বি বেড়ে গেল, কোলেস্টরল বেড়ে গেল, রাজার ডায়াবেটিস হলো৷ ডাক্তার বলল, “মহারাজ আপনি বেশী করে সবজী খান, আর এসব খাবার ছেড়ে দিন৷”

কিন্তু রাধুনী প্রতি বেলাতেই মজার মজার খাবার বানিয়েই চলল। খাটি ঘী এর পোলাও, গরুর কাচ্চি বিরিয়ানী, খাসীর রেজালা, হরেক রকম মিষ্টি, চকলেট কেক, ফ্রেন্চ ফ্রাই, বীফ বার্গার, রং বেরঙের ড্রিঙ্কস, বীফ বার্গার…..আরো কত কি ৷

রাজা খাবার টেবিলে এসব খাবার দেখে বলল,  “ ডাক্তার আমাকে এসব খেতে বারণ করেছে৷”  রাধুনি বলল, “ রাজা আমি আপনাকে অনেক ভালবাসি, তাই কষ্ট করে এসব মজার খাবার আপনার জন্য রান্না করি৷”

আপনি না খেলে তো আমার সকল কষ্টই বৃথা৷” “রাজা ভাবে-তাইত, বেচারা এত কষ্ট করে আমার জন্য, আমাকে এত ভালবাসে, আমি এগুলো না খেলে সে মনে কষ্ট পাবে৷ তাই রাজা তাকে খুশি করতে এখাবার গুলো খায় ৷

কয়েক মাস পর রাজার বুকে অনেক ব্যথা হলো৷ তাড়াতাড়ি ডাক্তার ডাকা হলো৷ ডাক্তার বলল, “মহারাজ আপনার হার্টে অসুখ হয়েছে , আপনি বেশী করে সবজী খান৷ আর এসব খাবার ছেড়ে দিন৷” কিন্তু রাধুনী মজার খাবার বানিয়েই চলল-খাটি ঘী এর পোলাও, গরুর কাচ্চি বিরিয়ানী, খাসীর রেজালা, হরেক রকম মিষ্টি, চকলেট কেক, ফ্রেন্চ ফ্রাই, রং বেরঙের ড্রিঙ্কস,বীফ বার্গার …আরো কত কি৷

রাজা খাবার টেবিলে এসব খাবার দেখে বলল, “ডাক্তার আমাকে এসব খেতে বারণ করেছে৷” রাধুনি বলল, “রাজা আজ মেহমান এসেছে, মেহমানদের সাথে একদিন খেলে কিচ্ছু হবে না৷” রাজা ভাবলো, তাইত, একদিন খেলে কিচ্ছু হবে না৷

রাধুনী মজার খাবার বানিয়েই চলল-খাটি ঘী এর পোলাও, গরুর কাচ্চি বিরিয়ানী, খাসীর রেজালা, হরেক রকম মিষ্টি, চকলেট কেক, ফ্রেন্চ ফ্রাই,রং বেরঙের ড্রিঙ্কস, বীফ বার্গার …আরো কত কি ৷ রাজা খাবার টেবিলে এসব খাবার দেখে বলল, “ডাক্তার আমাকে এসব খেতে বারণ করেছে”৷ রাধুনি বলল,  “মহারাজ, আজ একটা খুশীর দিন, আজ খেলে কিচ্ছু হবে না৷”

এভাবে যখনি রাজা বলত “ডাক্তার আমাকে এসব খেতে বারণ করেছে, রাধুনী কোনো না কোনো কারণ দেখিয়ে বলত মাত্র একদিন খেলে কিচ্ছু হবে না৷” এভাবে রাধুনী মজার খাবার বানিয়েই চলল- খাটি ঘী এর পোলাও, গরুর কাচ্চি বিরিয়ানী, খাসীর রেজালা, হরেক রকম মিষ্টি, চকলেট কেক, ফ্রেন্চ ফ্রাই, রং বেরঙের ড্রিঙ্কস, বীফ বার্গার …আরো কত কি ৷ আর রাজা খেয়েই চলল৷

কিছুদিন পরে রাজার আবার প্রচন্ড বুকে ব্যথা শুরু হলো৷ ডাক্তার এলো, ডাক্তার অনেক চেষ্টা করলো; কিন্তু কিছুতেই আর কিছু হলো না৷ অবশেষে রাজা মারা গেল৷

রাজা মারা যাওয়ার পর রাধুনী দৌড়ে গেল পাশের দেশের রাজার দরবারে তার পুরস্কার আনতে৷ কারণ, সে বীর রাজাকে যুদ্ধ ছাড়াই মেরে ফেলতে পেরেছে ৷

গল্প শিক্ষাঃ শক্তি দিয়ে সব কিছু জয় করা যায়, সাথে বুদ্ধি ও কৌশল লাগে।

নোটঃ বাচ্চারা উপদেশ পছন্দ করেনা কিন্তু গল্প শুনার জন্য জন্য পাগল।  এ গল্পটি বাচ্চাদের অস্বাস্থ্যকর খাবার সম্পর্কে সচেতন করার জন্য ব্যবহার করা যাবে। বীর রাজাকে যুদ্ধে হারানো যায় নি কিন্তু অস্বাস্থ্যকর খাবার খেয়ে সে মারা গেল।

আরো গল্প দেখুন..

About Syed Rubel

Creative Writer/Editor And CEO At Amar Bangla Post. most populer bloger of bangladesh. Amar Bangla Post bangla blog site was created in 2014 and Start social blogging.

Check Also

ইলিশ মাছ রহস্য : গোপাল ভাঁরের গল্প

গঙ্গার ধারে একদিন কথা প্রসঙ্গে মহারাজ কৃষ্ণচন্দ্র গোপালকে বললেন, ‘আমাদের বাঙ্গালীর মধ্যে ইলিশ মাছ দেখলেই …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *