Home / যৌন জীবন / যৌন বিষয়ক নিবন্ধন / উপভোগের গোপন সমূহ ফাঁস করা হারাম

উপভোগের গোপন সমূহ ফাঁস করা হারাম

স্বামী স্ত্রীর গোপন picture“আমাদের সমাজে এমন অনেক স্বামী স্ত্রী আছে যারা নিজেরা যা করে থাকে তা বন্ধু বান্ধবীদের নিকট প্রকার করে থাকে। স্বামীরা বন্ধুদের নিকট বলে,তোর ভাবী’তো সেই রকম চিজ। স্ত্রী বান্ধবীদের নিকট বলে বেড়ায়, অ না যা পারে এক কথায় সেইরকম। এ সব বলে আর তৃপ্তির ঢেকুর তুলে। অথচ রাসূল (সাঃ) এরকমটি করতে নিষেধ করেছেন এবং বলেছেন, যারা এসব কথা বলে দেয়, তারা লোকদের সামনে প্রকাশ্যে সহবাসে লিপ্ত হয়। অর্থাৎ, রাসূল (সাঃ) এটা বুঝাতে চেয়েছেন যে, গোপনে স্বামী স্ত্রী মিলিত হলেও অন্যের নিকট প্রকাশ করে দেওয়ার মাধ্যমে প্রকাশ্যে সহবাস করা হয়ে যায়।” শুধু তায়ি নয় বরং এর দ্বারা ক্ষতির প্রভাব পড়ে স্বামী স্ত্রীর উপর। যেমন এই ঘটনাটিকে উদাহরণ হিসাবে পড়া যেতে পারে।-সৈয়দ রুবেল (আমার বাংলা পোস্ট-সিইও)


[sc name=”ri3″]সহবাস সম্পর্কীয় সমস্ত গোপন সমূহ ফাঁস করা উভয়ের উপর হারাম। এ সম্পর্কে দু’টি হাদীসঃ

প্রথম হাদীসঃ নাবী সল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর বানীঃ “কিয়ামতের দিন আল্লাহর কাছে মানুষের মধ্যে সবচেয়ে ঐ ব্যক্তি ও ঐ মহিলা খারাপ, যারা উভয়ে মেলামেশা করে, অতঃপর মানুষের নিকট তার গোপনীয়তা প্রকাশ করে”।[1]

দ্বিতীয় হাদীসঃ “আসমা বিনতে ইয়াযীদ থেকে বর্ণিত যে, একদা তিনি আল্লাহর রসূল সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর কাছে ছিলেন এবং পুরুষ ও মহিলারা বসা অবস্থায় ছিল। নাবী ‘আলাইহি ওয়াসাল্লাম বললেনঃ সম্ভবত পুরুষ স্ত্রীর সাথে যা করে অপরকে বলে দেয় এবং স্ত্রী, স্বামীর সাথে যা করে তা বলে দেয়?

অতঃপর সবাই চুপ থাকলো, উত্তর দিল না। আমি বললামঃ আল্লাহর শপথ, হ্যাঁ আল্লাহর রসূল! নিশ্চয় মহিলা ও পুরুষগণ অবশ্যই তা করে। তিনি বললেনঃ সুতরাং তোমরা এরূপ কখনোই করবে না। কেননা, তা সেই পুরুষ শয়তানের ন্যায় যে মহিলা শয়তানের সাথে রাস্তায় সাক্ষাৎ করল। অতঃপর তার সাথে সহবাস করল এমতাবস্থায় যে, মানুষেরা তা দেখছে।[2]

আপনি পড়ছেনঃ বাসর রাতের আদর্শ বই থেকে।

আসুন এবার একটি ঘটনা পড়া যাকে। যিনি তার স্বামীর সম্পর্কে বান্ধবীর কাছে বলেছিলেন। ঘটনাটি পড়তে এখানে ক্লিক করুন। 


[1]  ইবনু আবী শাইবাহ (৭/৬৭/১) পৃষ্ঠা, তার সূত্রে ধরে ইমাম মুসলিম (৪/১৫৭) পৃষ্ঠা, আহমাদ (৩/৬৯) পৃষ্ঠা, আবূ নাঈম (১০/২৩৬-২৩৭) পৃষ্ঠা, ইবনুস সূন্নী ৯৬০৮ নম্বরে এবং বাইহাকী (৭/১৯৩-১৯৪) পৃষ্ঠা আবূ সাঈদের হাদীস থেকে বর্ণনা করেছেন।

অতঃপর আমি সংশোধন করে বলবঃ এই হাদীসটি সহীহ মুসলিমে হওয়া শর্তেও সানাদের দক দিয়ে যঈফ। কেননা, তার মধ্যে উমার বিন হামজা উমারী রয়েছে সে দুর্বল, যেমন তাকবীরে এবং যাহাবী মীযানে বলেছেনঃ তাকে ইয়াহইয়া বিন মাঈন এবং নাসায়ী যঈফ সাব্যস্ত করেছেন। ইমাম আহমাদ বলেছেনঃ (তার সমস্ত হাদীস মুনকার)।

অতঃপর ইমাম যাহাবী তার এ হাদীসটি নিয়ে এসে বলেছেনঃ এটা উমারের মুনকার হাদীসসমুহের একটি। আমি বলবঃ ইমামগণের এ মতামত থেকে এটাই রেজাল্ট হচ্ছে যে, হাদীসটি দুর্বল, সহীহ নয়। আল্লামা ইবনুল কাত্তান মধ্যপন্থা অবলম্বন করেছে। যেমন আলফাইযে বলেছেনঃ আর রাবী উমারকে ইবনু মুঈন যঈফ বলেছেন এবং ইমাম আহমাদ তার সমস্ত হাদিসকে মুনকার বলেছেন। কিন্তু তার হাদীস হাসান, সহীহ নয়। আমি বলবঃ তিনি (ইবনুল কাত্তান) নিজে উমারের দুর্বল হওয়া বর্ণনা করা সত্ত্বেও কিভাবে তাকে হাসান বললেন, আমি জানি না। সম্ভবত সে তা আসসহীহ এর প্রভাবের কারণে গ্রহণ করেছেন। আমি এ যাবৎ এমন কিছু পায়নি যার সাহায্যে এ হাদীসটি গ্রহণ করব। কিন্তু সামনের হাদীস তার বিপরীত। আর আল্লাহ তা’আলা বেশী জানেন।

[2] মুসনাদে ইমাম আহমাদ, আবূ শাইবার নিকট আবূ হুরাইরার হাদীস এর সমর্থক, আবূ দাঊদ (১/৩৩৯) পৃষ্ঠা, বাইহাকী, ইবনুস সুন্নীর (২০৯) নম্বর, তার দ্বিতীয় প্রমাণ রয়েছে যাকে বাযযার আবূ সাঈদ থেকে (১৪৫০) নম্বর বর্ণনা করেছেন এবং তার তৃতীয় প্রমাণ সালমান থেকে আল-হিলয়্যিাহ এর (১/১৮৬) পৃষ্ঠা রয়েছে। সুতরাং এ সকল প্রমাণাদি দ্বারা হাদীসটি সহিহ অথবা কমপক্ষে হাসান।

About Syed Rubel

Creative Writer/Editor And CEO At Amar Bangla Post. most populer bloger of bangladesh. Amar Bangla Post bangla blog site was created in 2014 and Start social blogging.

Check Also

নারীর দেহের ৯ টি হট স্পট

আমরা আগের পোস্ট গুলোতে নারীর দেহ যৌনাঙ্গের উত্তেজনা স্থান গুলো নিয়ে কথা বলেছিলাম। এই পোস্ট …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *