Home / যৌন জীবন / প্রশ্ন ও উত্তর / প্রশ্নঃ হিন্দু মেয়ে মুসলমান ছেলে’কে কি বিয়ে করতে পারবে?

প্রশ্নঃ হিন্দু মেয়ে মুসলমান ছেলে’কে কি বিয়ে করতে পারবে?

হিন্দু মেয়েপ্রশ্নঃ হিন্দু মেয়ে মুসলমান ছেলে’কে কি বিয়ে করতে পারবে?

উত্তরঃ প্রেমের সম্পর্কে হওয়ার কারনে যদি কোন হিন্দু মেয়ে মুসলিম ছেলে’র সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হতে চায় তাহলে তাকে অবশ্যই প্রথমে তাকে মুসলিম হতে হবে। নয়তো তাকে বিবাহ করা কোন মুসলিম ছেলের জন্য বৈধ নয়। কোন মুসলিম ছেলের জন্য জায়েয নয় কোন অমুসলিম মেয়েকে বিবাহ করার। কেননা মহান আল্লাহ পবিত্র কুরআন কারীমে বলেনঃ “আর তোমরা মুশরেক নারীদেরকে বিয়ে করোনা, যতক্ষণ না তারা ঈমান গ্রহণ করে। অবশ্য মুসলমান ক্রীতদাসী মুশরেক নারী অপেক্ষা উত্তম, যদিও তাদেরকে তোমাদের কাছে ভালো লাগে। এবং তোমরা (নারীরা) কোন মুশরেকের সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়ো না, যে পর্যন্ত সে ঈমান না আনে। একজন মুসলমান ক্রীতদাসও একজন মুশরেকের তুলনায় অনেক ভাল, যদিও তোমরা তাদের দেখে মোহিত হও। তারা দোযখের দিকে আহ্বান করে, আর আল্লাহ নিজের হুকুমের মাধ্যমে আহ্বান করেন জান্নাত ও ক্ষমার দিকে। আর তিনি মানুষকে নিজের নির্দেশ বাতলে দেন যাতে তারা উপদেশ গ্রহণ করে”। (আল কুরআন-২/২২১)

“এগুলো আল্লাহর নির্ধারিত সীমা। যে কেউ আল্লাহ ও রসূলের আদেশমত চলে, তিনি তাকে জান্নাত সমূহে প্রবেশ করাবেন, যেগুলোর তলদেশ দিয়ে স্রোতস্বিনী প্রবাহিত হবে। তারা সেখানে চিরকাল থাকবে। এ হল বিরাট সাফল্য।”(আল-কুরআন ৪/১৩)

পরের আয়াতে আল্লাহ বলেনঃ

“যে কেউ আল্লাহ ও রসূলের অবাধ্যতা করে এবং তার সীমা অতিক্রম করে তিনি তাকে আগুনে প্রবেশ করাবেন। সে সেখানে চিরকাল থাকবে। তার জন্যে রয়েছে অপমানজনক শাস্তি।”(আল-কুরআন ৪/১৪)

এখন আপনি তাকে বিয়ে করতে চান তাহলে অবশ্যই আপনাকে মুসলিম হতে হবে। এখন যদি আপনি তাকে বিয়ে করার জন্য মুসলিম হন তাহলেও এটা শুদ্ধ হবে না। কেননা আপনাকে সত্য উপলব্ধি করতে হবে। ইসলামের হুকুম আহকাম মেনে চলতে হবে। আল্লাহ বলেনঃ “বলুন, সত্য এসেছে এবং মিথ্যা বিলুপ্ত হয়েছে। নিশ্চয় মিথ্যা বিলুপ্ত হওয়ারই ছিল।”(আল কুরআন-১৭/৮১)।

এখন আপনি পরীক্ষা করে দেখুন, আপনি যে ধর্মের অনুসারী সে ধর্মের রীতিনীতি কতটুকু সত্য। আপনি কিভাবে পরীক্ষা করবেন? এখানেও কুরআন আপনাকে সাহায্য  করবে। আল্লাহ বলেন, “বলুন, তিনি আল্লাহ, এক,আল্লাহ অমুখাপেক্ষী,তিনি কাউকে জন্ম দেননি এবং কেউ তাকে জন্ম দেয়নি এবং তার সমতুল্য কেউ নেই।” (আল-কুরআন ১১২)

এজন্যই আমি আপনাকে বলতেছি আপনি সত্য গ্রহণ করুন এবং মিথ্যা পরিহার করুন। আপনি ইসলাম সম্পর্কে জানতে ইসলামের মৌলিক বই গুলো পড়ুন এবং তাঁর সাথে আপনার ধর্মের বই গুলোও পড়ুন। তারপর এগুলোকে যাচাই করে নির্ধারণ করুন কোনটি সঠিক। আপনাকে সত্য গ্রহণ করতে হবে।  কেননা আল্লাহ বলেই দিয়েছেন “তারা দোযখের দিকে আহ্বান করে, আর আল্লাহ নিজের হুকুমের মাধ্যমে আহ্বান করেন জান্নাত ও ক্ষমার দিকে। আর তিনি মানুষকে নিজের নির্দেশ বাতলে দেন যাতে তারা উপদেশ গ্রহণ করে”।

মহান আল্লাহ আপনাকে উপদেশ দিচ্ছেন, তারা আপনাকে দোযখের দিকে আহ্বান করে আর আল্লাহ নিজের হুকুমের মাধ্যমে আহ্বান করেন জান্নাত ও ক্ষমার দিকে। এখন সিদ্ধান্ত আপনার আপনি কোনটিকে গ্রহণ করবেন।–আল্লাহ আপনাকে সত্য বুঝার তওফিক দান করুন। আমীন।

About Syed Rubel

Creative Writer/Editor And CEO At Amar Bangla Post. most populer bloger of bangladesh. Amar Bangla Post bangla blog site was created in 2014 and Start social blogging.

Check Also

প্রশ্নঃ মিলনের সময়ে পরনের কাপড় কি নাপাক হয়?

প্রশ্নঃ মিলনের সময়ে যে সব কাপড় পরিধান করা থাকে, সে সব পরিধেয় কাপড় কি নাপাক …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *