যে কোন যৌন বা স্বাস্থ্য সমস্যায় বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। ডা.মনিরুজ্জামান এম.ডি স্যার। কল করুন- 01707-330660

স্বামীকে বশ করার উপায়যদি কারো ভাগ্যে বদমেজাজী ও নিষ্ঠুর স্বামী ভাগ্যে জুটে যায়, তাহলে নববধূকে হতাশ হলে চলবে না, বরং যথাসম্ভব ঝগড়া-কলহ এড়িয়ে চলার চেষ্টা করতে হবে। এর জন্য নববধূকে প্রথমে ঝগড়া-বিবাদের মূল কারণ ও হেতু চিহ্নিত করে সে অনুপাতে ব্যবস্থা নিয়ে সমঝোতায় আসতে হবে। মনে রাখতে হবে-সব মানুষের মন-মেজাজ এক রকম হয় না। তাই ভাগ্যের লিখন মনে করে বসে না থেকে এর পন্থা অবলম্বন করাই কর্তব্য। কখনো কখনো এমন হয়ে থাকে যে, বাহ্যিকভাবে যে বিষয়টিকে ঝগড়া-বিবাদের কারণ বলে চিহ্নিত করা হয়, মূলতঃ তা ঝগড়া-বিবাদের কারণ নয়। বরং কারণ হয়ত অন্য কিছু, যা উভয়ের জীবনের সাথে অঙ্গাঙ্গীভাবে জড়িত, যা দূর করার জন্য প্রয়োজন একে অপরের বুঝতে চেষ্টা করা এবং একনিষ্ঠততার সাথে একে অপরের সহযোগী হওয়া।

কখনো কখনো প্রাথমিক পর্যায়ে একে অপরের স্বভাবের সাথে, মেজাজের সাথে, মন-মানসিকতা ও অভ্যাসের সাথে পরিচিত না হওয়ার কারণেও ঝগড়া-বিবাদ হয়ে থাকে। পরস্পরে একটু ছাড় দিয়ে একে অপরকে বুঝতে চেষ্টা করলে তা নিরসন হয়ে যায়। আবার কখনো কখনো এমনও হয়ে থাকে যে, স্বামী-স্ত্রীর গভীর প্রেম-ভালবাসার মাঝে কুটনী শাশুড়ী, ফাসাদী জা, হিংসুকে ননদ প্রতিবন্ধক হয়ে দাঁড়ায়। তখন নববধূকে বুদ্ধিমত্তার সাথে পরিস্থিতি সামাল দিতে হয়। যাতে সাপও মরে যায়, লাঠিও না ভাঙ্গে। মোটকথা, ঝগড়া-বিবাদ যে কোন কারণেই হোক না কেন, উলামায়ে কিরাম বা দ্বীনদার বিজ্ঞজনের সাথে পরামর্শ করে সুরাহা করে নিতে হবে। যত বয়াবহ অবস্থাই হোক না কেন, নিরাশ হওয়া যাবে না। সমস্যা বৃদ্ধি না করে সমাধানের পথ করাই মঙ্গলজনক।

কখনো কখনো এমন দেখা যায় যে, স্বামী-স্ত্রী প্রথম হতেই এটা উপলদ্ধি করতে পারে যে, তাদের বৈবাহিক জীবন হয়ত দীর্ঘদিন স্থায়ী হবে না। যেমন, প্রথম হতেই স্বামীর কাছে তার স্ত্রী পছন্দনীয় হয়নি। আর অধিকাংশ সময় এটা তখনই হয়ে থাকে, যখন স্বামী বিবাহ করার প্রাক্কালে তার স্ত্রীকে না দেখে শুধুমাত্র মা বা বোনের কথার উপর নির্ভর করে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়। এজন্যই প্রতিটি পুরুষ ও মহিলার জন্য জরুরী হচ্ছে-বিবাহ কার্য সম্পাদনের পূর্বেই যাকে নিয়ে জীবনের পদযাত্রা শুরু করতে চায়, তাকে অন্যন্ত দক্ষতার সাথে যাচায়-বাচাই করা। তার আচার-আচরণ, রীতি-নীতি পর্যবেক্ষণ করা। আবেগের বশবর্তী হয়ে বা কারো প্ররোচনায় প্রভাবিত হয়ে এরূপ গুরুত্বপূর্ণ কাজে সিদ্ধান্ত নেয়া ঠিক নয়। আপনার প্রতি আমাদের পরামর্শ হলঃ আপনি আদর্শ স্বামী স্ত্রী ২ বই টি পড়েন। বইটি আপনাকে অনেক সাহায্য করবে বলে আমরা মনে করি।

আপনি পড়ছেনঃ পরিপূর্ণ  স্বামী স্ত্রীর মধুর মিলন বই থেকে।

Syed Rubelপরামর্শ মূলক নিবন্ধনযদি কারো ভাগ্যে বদমেজাজী ও নিষ্ঠুর স্বামী ভাগ্যে জুটে যায়, তাহলে নববধূকে হতাশ হলে চলবে না, বরং যথাসম্ভব ঝগড়া-কলহ এড়িয়ে চলার চেষ্টা করতে হবে। এর জন্য নববধূকে প্রথমে ঝগড়া-বিবাদের মূল কারণ ও হেতু চিহ্নিত করে সে অনুপাতে ব্যবস্থা নিয়ে সমঝোতায় আসতে হবে। মনে রাখতে হবে-সব মানুষের মন-মেজাজ এক রকম...Amar Bangla Post