যে কোন যৌন বা স্বাস্থ্য সমস্যায় বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। ডা.মনিরুজ্জামান এম.ডি স্যার। কল করুন- 01707-330660

sex in islam with husbandমাসআলা ৫. কেমন পদ্ধতিতে সহবাস করবে?

আর স্বামীর জন্য বৈধ যে, সে তাঁর স্ত্রীর সম্মুখভাগে যে দিক দিয়ে চায় সামনে বা পিছনের দিক দিয়ে সহবাস করবে। আল্লাহ তাবারকা ওয়া তা’আলা এর বাণীর পরিপ্রেক্ষিতেঃ

“তোমাদের স্ত্রীরা হল তোমাদের জন্য শয্যক্ষেত্র। তোমরা যেভাবে ইচ্ছা তাদেরকে ব্যবহার করো”-(সূরা আল-বাকারাহ ২২৩)

অর্থাৎ যেমন ভাবে ইচ্ছা কর। সামনের দিক দিয়ে ও পিছনের দিক দিয়ে।

আর এব্যাপারে অনেক হাদীস রয়েছে। দু’টি উল্লেখের মাধ্যমে যথেষ্ট মনে করছি/

প্রথম হাদীসঃ

জাবির (রাঃ) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, ইয়াহুদীরা বলতো, যদি স্বামী স্ত্রীর পিছন দিক দিয়ে তাঁর সম্মুখভাবে সহবাস করে তাহলে সন্তান ট্যারা হবে। “তোমাদের স্ত্রীরা হল তোমাদের জন্য শষ্যক্ষেত্র। তোমরা যেভাবে ইচ্ছা তাদেরকে ব্যবহার করো”-(সূরা আল-বাকারাহ)। এই আয়াতটি অবতীর্ণ হয়। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তারপর বললেন, সম্মুখ ও পিছন উভয় দিক দিয়ে করা যাবে যদি তা লজ্জাস্থান হয়।[1]

দ্বিতীয় হাদীসঃ

ইবনে আব্বাস (রাঃ) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, আনসারী মূর্তি পূজকদের এ গোত্রটি ইয়াহুদী আহলে কিতাবদের এ গোত্রের সাথে বসবাস করতো। আর আনসারগণ জ্ঞানের দিক দিয়ে ইয়াহুদীদের অনেক ক্ষেত্রেই অনুসরণ করতো। আর আহলে কিতাবদের একটি অভ্যাস ছিল যে, তারা শুধুমাত্র তাদের স্ত্রীদের এক দিক দিয়েই সহবাস করতো। আর স্ত্রী তাঁর দ্বারা সবচেয়ে বেশী আবৃত হতো। সুতরাং আনসারদের এই গোত্রটি ইয়াহুদীদের ঐ কাজটি গ্রহণ করেছিল। আর কুরাইশদের এ গোত্র তাদের মহিলাদেরকে নিকৃষ্টভাবে খোলাখুলি করতো এবং তাদেরকে সম্মুখ দিয়ে, পিছন দিয়ে, চীৎ করে, উপভোগ করতো। অতঃপর মুহাজিরগণ যখন মদীনায় আগমণ করলেন, তখন একজন কুরাইশ ব্যক্তি আনসারী এক মহিলাকে বিবাহ করলেন। সে তাঁর স্ত্রীর কাছে তাদের নিয়মে কাজ করলেন। কিন্তু মহিলা তা খারাপ মনে করলেন এবং বললেন, আমাদেরকে শুধুমাত্র একদিক দিয়েই সহবাস করা হয়। সুতরাং তুমি তা-ই কর নতুবা আমার থেকে দূরে থাক। এমনকি তাঁর ব্যাপারটি বিরাট আকার ধারণ করল। শেষ পর্যন্ত আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম-এর নিকট সংবাদ পৌঁছাল। অতঃপর আল্লাহ তা’আলা এই আয়াতটি নাযিল করলেন। “তোমাদের স্ত্রীরা তোমাদের জন্য ক্ষেতস্বরূপ, তোমরা যেভাবে ইচ্ছা ব্যবহার করতে পারো”-(সূরা আল-বাকারাহ ১২৩) অর্থাৎ সম্মুখ করে, পিছনে করে ও চীৎ করে। মূল উদ্দেশ্য তাঁর দ্বারা সন্তান হওয়ার স্থান যেন হয়। [2]

[1]  বুখারী ৮/১৫, মুসলিম ৪/১৬৫, নাসাঈ ৭৬/১-২, ইবনু আবী হাতিম ৩৩৯/১-মাহমুদিয়া ৮/৭৯/১, জুরজানী ২৯৩/৪৪০, বাইহাকী ৭/১৯৫, ইবনু আসাকির ৮/৯৩/২ ও ওয়াহিদী ৫৩, আর ওয়াহিদী বলেন-শাইখ আবূ হামিদ বিন শারকী বলেন, এটা এমনমহীয়ান হাদীস যা একশ হাদীসের সমতুল্য।

[2]  আবু দাউদ ১/১৩৭, হাকিম ২/১৯৫/২৭৯;  বাইহাকী ৭/১৯৫, ওয়াহিদের আসবাব ৫২, ইমাম খাত্তাবির গরীবুল হাদীস ৭৩/২, তাঁর সানাদ হাসান। ইমাম হাকিম মুসলিমের শর্তানুযায়ী তাকে সহীহ বলেছেন। আর ইমাম যাহাবী তাকে সমর্থন দান করেন। ত্ববরানীর নিকট (৩/১৮৫ পৃঃ) সংক্ষিপ্ত অপর একটি সূত্র রয়েছে।

আর ইবনু উমার (রাঃ)-এর হাদীস থেকে অনুরূপ প্রমাণ রয়েছে। যা ইমাম নাসাঈ আল ইশরাহ এর (৭৬/২ পৃঃ) সহীহ সানাদে বর্ণনা করেছেন। অতঃপর তিনি ইমাম কাসিম সুরকাসতী আল-গরীব এর ২/৯৩/২/ পৃষ্ঠা এবং অন্যান্যরা সাঈদ বিন ইয়াসার থেকে বর্ণনা করেছেন। সাঈদ বিন ইয়াসার বলেন, আমি ইবনে উমারকে বললাম আমরা দাসীদের ক্রয় করি ও তাদের তাহমীয করি। তিনি বললেন, তাহমীয কি? আমি বললাম, পিছন দিক দিয়ে সহবাস করি। তিনি বললেন্ম আহ! মুসলিম কি এরূপ করে।

আমি বলবঃ তাঁর সানাদ সহীহ। আর তা ইবনু উমার থেকে স্পষ্ট প্রমাণ যে, তিনি মহিলাদের পিছনে সহবাস করাতে কঠিন অস্বীকৃতি প্রদান করেছেন। সুতরাং ইমাম সুয়ূতী এবং অন্যান্যরা অন্যস্থানে এই প্রমাণের বিপরীত করেন, তা সম্পূর্ণ ভুল। সুতরাং তারদিকে দৃষ্টিপাত করা হবে না।-সূত্রঃ বাসর রাতের আদর্শ

বিভাগঃ যৌন শিক্ষা

Syed Rubelসঙ্গম বা সহবাসমাসআলা ৫. কেমন পদ্ধতিতে সহবাস করবে? আর স্বামীর জন্য বৈধ যে, সে তাঁর স্ত্রীর সম্মুখভাগে যে দিক দিয়ে চায় সামনে বা পিছনের দিক দিয়ে সহবাস করবে। আল্লাহ তাবারকা ওয়া তা’আলা এর বাণীর পরিপ্রেক্ষিতেঃ “তোমাদের স্ত্রীরা হল তোমাদের জন্য শয্যক্ষেত্র। তোমরা যেভাবে ইচ্ছা তাদেরকে ব্যবহার করো”-(সূরা আল-বাকারাহ ২২৩) অর্থাৎ যেমন ভাবে ইচ্ছা কর।...Amar Bangla Post