যে কোন যৌন বা স্বাস্থ্য সমস্যায় বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। ডা.মনিরুজ্জামান এম.ডি স্যার। কল করুন- 01707-330660

Muslim babyপ্রশ্নঃ (১৯৩) তওবা করার পর কি ছেড়ে দেওয়া নামাযের কাযা আদায় করতে হবে?

উত্তরঃ ইচ্ছাকৃতভাবে নামায পরিত্যাগ করার পর তওবা করে আল্লাহর পথে ফিরে আসলে ছেড়ে দেয়া নামায সমূহ কাযা আদায় করতে হবে কিনা এব্যাপারে বিদ্বানগণ মতভেদ করেছেন। এক্ষেত্রে দু’টি মত পাওয়া যায়।

আমার কাছে প্রাধান্যযোগ মতটি হচ্ছে যা শায়খুল ইসলাম ইমাম ইবনু তায়মিয়া পছন্দ করেছেন। যে ব্যক্তি ইচ্ছাকৃতভাবে নামায পরিত্যাগ করে এমনকি সময় পার করে দেয়, তাঁর কাযা আদায় করাতে কোন ফায়দা নেই। কেননা নির্দিষ্ট সময়ের ইবাদত অবশ্যক উক্ত নির্ধারিত সময়েই আদায় করতে হবে। সময়ের আগে আদায় করলে যেমন হবে না, অনুরূপ সময় পার হওয়ার পর আদায় করলেও তা বিশুদ্ধ হবে না। আল্লাহর সীমারেখা সমূহ হেফাযত করা অত্যন্ত জরুরী। শরীয়ত প্রণেতা আমাদের উপর নামায ফরয করে তাঁর সীমা নির্ধারিত করে দিয়েছেন-এই সময় থেকে এই সময়ের মধ্যে নামায আদায় করতে হবে। অতএব যে স্থানকে নামাযের স্থান হিসেবে নির্ধারণ করা হয়নি যেখানে যেমন নামায বিশুদ্ধ হবে না। তেমনি যে সময়কে নামাযের সময় হিসেবে নির্ধারণ করা হয়নি, সে সময়ে নামায আদায় করলেও তা বিশুদ্ধ হবে না।

অবশ্য যে ব্যক্তি ছালাত পরিত্যাগ করেছে তাঁর উপর আবশ্যক হচ্ছে বেশী বেশী তওবা ইস্তেগফার করা এবং বেশী বেশী নফল ইবাদত ও নেক কাজে লিপ্ত হওয়া। আশা করা যায় এর মাধ্যমে আল্লাহ তাকে মাফ করে দিবেন ও পরিত্যাক্ত নামায সমূহকে ক্ষমা করবেন। (আল্লাহই তাওফীক্ব দাতা)

Syed Rubelনামাযফতোয়াপ্রশ্নঃ (১৯৩) তওবা করার পর কি ছেড়ে দেওয়া নামাযের কাযা আদায় করতে হবে? উত্তরঃ ইচ্ছাকৃতভাবে নামায পরিত্যাগ করার পর তওবা করে আল্লাহর পথে ফিরে আসলে ছেড়ে দেয়া নামায সমূহ কাযা আদায় করতে হবে কিনা এব্যাপারে বিদ্বানগণ মতভেদ করেছেন। এক্ষেত্রে দু’টি মত পাওয়া যায়। আমার কাছে প্রাধান্যযোগ মতটি হচ্ছে যা শায়খুল ইসলাম...Amar Bangla Post