যে কোন যৌন বা স্বাস্থ্য সমস্যায় বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। ডা.মনিরুজ্জামান এম.ডি স্যার। কল করুন- 01707-330660

বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে ইসলামোফোবিয়া বা ইসলাম নিয়ে অহেতুক ভয়-ভীতি প্রসূত আচরণের মুখোমুখি হন মুসলিমরা। বিশেষ করে পশ্চিমা দেশগুলোতে মুসলিমরা এর শিকার হন নিত্যদিন। এ নিয়ে বৃটেনের একদল তরুণ-তরুণী মুসলিম তাদের বক্তব্য ও অভিজ্ঞতা তুলে ধরেছেন একটি ভিডিওতে। বৃটেনের সংবাদমাধ্যম মেট্রোর এক প্রতিবেদনে ওই ভিডিওকে আখ্যা দেয়া হয়েছে ‘বলিষ্ঠ’ হিসেবে। তিন মিনিটের ওই ভিডিওতে কয়েকজন নারী ও পুরুষ তাদের প্রতিদিনের নানা চ্যালেঞ্জের কথা বলেছেন। এক তরুণী বলেছেন, ‘আমি এদেশে আছি ২০ বছর। এখানেই স্কুলে পড়াশোনা। পরিবারের সবাই এখানেই থাকে। আমরা সবাই কাজ করি। আমি ভোট দেই। আমার সামর্থ্যরে সবটুকু আমি করি এখানে সবার মধ্যে মানিয়ে নেয়ার জন্য। হয়তো সেটা কিছু মানুষের জন্য কখনই যথেষ্ট হবে না।’ আয়েশা নামের ২০ বছরের আরেক নারী বলেন, আমি আমার ভাইবোনদের সঙ্গে ছিলাম। কেউ একজন আমাদের পাশ দিয়ে গাড়ি চালিয়ে চলে যায়। আর তারা চিতকার করে বলে, ‘যাও নিজেদেরকে বোমা ফাটিয়ে উড়িয়ে দাও।’ আরেক নারী বলেন, ‘প্রতিদিন ইউনিভার্সিটি যেতে আমার এক ঘণ্টা সময় লাগে। যাওয়ার পথে মানুষ ভিন্ন দৃষ্টিতে তাকায়। তাদের অঙ্গভঙ্গি বলে দেয় মাথায় স্কার্ফ পরা একজনের আশেপাশে থাকতে তারা ঠিক পুরোপুরি স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করে না।’ আফিয়া নামের ২০ বছরের আরেক নারী বলেছেন, তাকে ‘সন্ত্রাসী’ বলেও কটুক্তি করা হয়েছে। এভাবে মুসলিম তরুণ তরুণীরা তাদের নানা তিক্ত অভিজ্ঞতা তুলে ধরেছেন। ভিডিওটি তৈরি করেছে বৃটিশ ম্যাগাজিন ডেইজড। এর শিরোনাম দেয়া হয়েছে ‘ডু ইউ নো হু আই অ্যাম’। প্যারিস হামলার পর মুসলিমদের ওপর ঘৃণাপ্রসূত হামলার ঘটনা বেড়ে যায় ৩০০ শতাংশ। এরপরই তৈরি করা হয় ভিডিওটি।

Syed Rubelআন্তর্জাতিকভিডিও খবরবিশ্বের বিভিন্ন স্থানে ইসলামোফোবিয়া বা ইসলাম নিয়ে অহেতুক ভয়-ভীতি প্রসূত আচরণের মুখোমুখি হন মুসলিমরা। বিশেষ করে পশ্চিমা দেশগুলোতে মুসলিমরা এর শিকার হন নিত্যদিন। এ নিয়ে বৃটেনের একদল তরুণ-তরুণী মুসলিম তাদের বক্তব্য ও অভিজ্ঞতা তুলে ধরেছেন একটি ভিডিওতে। বৃটেনের সংবাদমাধ্যম মেট্রোর এক প্রতিবেদনে ওই ভিডিওকে আখ্যা দেয়া হয়েছে ‘বলিষ্ঠ’ হিসেবে।...Amar Bangla Post