Home / বাংলা লাইফ স্টাইল / উজ্জ্বল ত্বকের জন্য

উজ্জ্বল ত্বকের জন্য

তারুণ্যআমাদের শরীরের আচ্ছাদনটির নাম ত্বক। আর সুন্দর—সজীব ত্বকই হল সৌন্দর্যের প্রধানতম আকর্ষণ। তাই ত্বকের পরিচর্যা অত্যন্ত জরুরী।

বর্তমানে গৃহিণী হোন বা কর্মজীবী, উভয়ে ব্যস্ত থাকেন ঘরে—বাইরে নানা কাজে।  বাইরের রোদ—বৃষ্টিতে তাদের ত্বক হয়ে উঠে কর্কশ—রক্ষ । সময়াভাবে ত্বক পরিচর্যার সময় পান না। কিন্তু ঈদের আগে ত্বকের যত্নের জন্য একটু সময় বের করে নিন। নইলে ঈদের জন্য কেনা আপনার দামি পোশাক দৃষ্টিনন্দের পরিবর্তে লাগবে দৃষ্টিকটু। স্বল্পসময়ে অল্প খরচ এখনই তাড়াতাড়ি ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ানোর জন্য রইল কিছু পরামর্শ

* আন্দাজমতো সাদা জিরা, আতপ চাল সামান্য পানিতে ভিজিয়ে ফ্রিজে রেখে দিন। পরদিন বেটে লেবুর রস ও দুধের সর মিশিয়ে নিন। এ প্যাকটি সারা শরীরে, মুখে—হাতে লাগিয়ে নিন। ১৫—২০ মিনিট পর ভেজা হাতে রগড়ে তুলে ফেলুন। ঠান্ডা পানিতে ধুয়ে নিন। নিয়মিত ব্যবহারে আপনার ত্বক হয়ে উঠবে উজ্জ্বল। যাদের তৈলাক্ত ত্বক তারা সর বাদ দিবেন।

* ঘরে পাতা দই অথবা কাঁচা দুধ, বেসন ও চিনি এক সঙ্গে মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুণ। গোসলের আগে মুখে, হাতে—পায়ে লাগিয়ে ১০—১৫ মিনিট অপেক্ষা করুণ। তারপরে ঘষে তুলে গোসল করে বডিলোশন লাগান।

এখকন থেকে রোদে বের হওয়া কমিয়ে দিন। অথবা এড়িয়ে চলুন। ত্বকের পক্ষে সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মি খুন ক্ষতিকর। যাদের বের হতে হবে তারা সানস্ক্রিন বা সানব্লক মেখে নিবেন। দুপুর ১২ টা থেকে বিকাল ৪ টা পর্যন্ত অতিবেগুনি রশ্মির প্রভাব সর্বাপেক্ষা ক্ষতিকয়ারক।  এ সময় যত কম রোদে বের হওয়া যায় ততই ভালো।

* একটু ময়দা দুধের সরের সঙ্গে মিশিয়ে মুখে—হাতে লাগাবেন। ১০—১৫ মিনিট পর ঘষে তুলে ফেলবেন। ময়দাগুলো ঝরে যাবে আর ত্বকের উপর সরের তেলা ভাবটা থেকে যাবে। এতে ত্বকের সব ময়লা উঠে যাবে এবং ত্বক উজ্জ্বল        ও মসৃণ হবে। আপনার ত্বক তৈলাক্ত হলে বেসন ও লেবুর রস লাগান।

* মসুর ডাল বাটা ১ টেবিল চামচ,৪-৫ ফোঁটা মধু একটু কাঁচা দুধ মিশিয়ে মুখে—গলা, হাতে লাগিয়ে ১৫ মিনিট পর কুসুম গরম পানিতে ধুতে ফেলুন।

* ১ কাপ দুধ, ১ চা চামচ মধু, ১ চা চামচ গাজরের কিংবা কমলালেবুর রস মিশয়ে মাখুন। কিছুক্ষণ পর ঠান্ডা পানির ঝাপটা দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

* গোসল করে গ্লিসারিন ও গোলাপজল মিশিয়ে লাগাবেন। ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে এ পদ্ধতি গুলোর যে কোনো একটি নিয়মিত করুণ।

এছাড়া নিয়মিতভাবে ভিটামিন-সি খাবেন। শাক-সবজি, বিভিন্ন ফলের রস বা ফল এবং প্রতিদিন ৬—৮ গ্লাস পানি খাবেন।

আপনার ত্বক যদি রোওদে পুড়ে যায়, তাহলে ঘরোয়া পদ্ধতি তিনটি ব্যবহার করুণ, উপকার পাবেন।

* একটি ছোট শসা খোসাসহ পাতলা করে কেটে তার সঙ্গে একটা ডিমের কুসুম ও ১ চা চামচ মিল্ক পাউডার মিশিয়ে মিক্সচারে ব্লেন্ড করে নিন।

এবার তুলা দিয়ে মুখে—হাতে, গলায় লাগিয়ে ১৫ মিনিট রেখে কুসুমগরম পানিতে ধুয়ে ফেলুন।

বরফ ঠান্ডা পানিতে এক টুকরো কাপড় ভিজিয়ে তা রোদে পোড়া জায়গায় চেপে রাখুন। সামান্য সময়ের ব্যবধানে বেশ কয়েকবার এভাবে করুণ। দিনে কয়েকবার করুণ।

* দুধের প্রোটিন রোদে পোড়া ত্বকের ক্ষেত্রে বিশেষ উপকারী। ১ কাপ মাঠা তোলা দুধ ও চার কাপ পানি মিশিয়ে এতে বরফকুচি দিন। ১৫—২০ মিনিট ধরে এ মিশ্রণটি বারবার লাগান। পরে ২ থেকে ৪ ঘন্টা অন্তর এ মিশ্রণটি ব্যবহার করুণ। কিছুদিনের মধ্যেই দেখবেন ত্বকের পোড়াভাব উঠে গিয়ে ঝকঝকে হয়ে উঠেছে।

এছাড়া প্রতিদিন ৮ ঘন্টা ঘুমান। নিজেকে টেনশনমুক্ত রাখার চেষ্টা করুণ।

রাতে শুতে যাওয়ার আগে ভিটামিন ‘ই’ যুক্ত ভালো ক্রিম দিয়ে মুখ ম্যাসাজ করুন। এটা খুবই উপকারী।

About Syed Rubel

Creative writer and editor of amar bangla post. Syed Rubel create this blog in 2014 and start social bangla bloggin.

Check Also

পশু পাখি

পশু-পাখির প্রতিও সদয় হোন!

অমায়িক ব্যবহার কারো অভ্যাসে পরিণত হলে তা সাধারণত দূর হয় না। তা তাঁর প্রকৃতির অংশ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Optimization WordPress Plugins & Solutions by W3 EDGE