Home / নারী / নারীর জীবনধারা / মেয়েদের ত্বকের যত্ন

মেয়েদের ত্বকের যত্ন

ত্বকের যত্নশীতে মেয়েদের চুল, মুখের ত্বক, হাত—পা সব কিছুরই যত্ন নিতে হয়। তবে শুরুতে ত্বকের ধরণ বুঝে নিতে হয়। সকালে ঘুম থেকে উঠার পর থেকে যন্ত শুরু করতে হবে। গ্লিসারিনযুক্ত সাবান, ক্ক্রিক্ম ক্লেনজার, ক্লেনজিং ওয়াইপাস ও তেলসমৃদ্ধ ক্লেনজার ব্যবহার করা যেতে পারে মুখ পরিস্কার করতে। শীতে ফোমিং ক্লেনজার বা ডিম ক্লিন ক্লেনজার ব্যবহার না করাই ভালো। ত্বক রুক্ষ হয়ে যেতে পারে। তৈলাক্ত ত্বক হলে হালকা ময়েশ্চারাইজার আছে, এমন ক্লেনজার ব্যবহার করতে হবে। ত্বকে তেলের ভারুসাম্য রাখতে হবে। বাইরে বের হওয়ার আগে ময়েশ্চারাইজার—সমৃদ্ধ সানস্ক্রিন লোশন বা ক্রিম ব্যবহার করতে হবে। স্টিকি ফাউন্ডেশন ব্যবহার না করে ময়েশ্চারাইজার যুক্ত কমপ্যাক্ট ব্যবহার করা যেতে পারে। স্যাটিন লিপস্টিক, ফ্রস্টেড লিপস্টিক এই সময়ে ঠোঁটকে বাড়তি সৌন্দর্য এনে দেবে। লিপবাম ব্যবহার করলে দেখে নিন তা অতিবেগুনি রশ্মি প্রতিরোধক কি না। রাতে বাসায় ফিরে ভালোভাবে ত্বক পরিস্কার করে নিন। দুধ, মধু, কাঁচা হলুদ দিয়ে প্যাক তৈরি করে মুখ, ঘাড়, হাত—পায়ে ব্যবহার করতে পারেন। খেয়াল রাখবেন, এসব উপাদান আপনার ত্বকে কোনো ক্ষতিকর প্রভাব ফেলছে কি না। এরপর ভালো মানের ময়েশ্চারাইজিং ক্রিম মুখে ব্যবহার করুন। ঠোঁট ফাটার প্রবণতা থাকলে নারকেল তেল, গ্লিসারিন বা দুধের সর লাগিয়ে রাখুন। বাসায় ফিরে হালকা গরম পানিতে একটু লবণ, শ্যাম্পু মিশিয়ে ১০—১৫ মিনিট হাত—পা ডুবিয়ে রাখুন। পায়ের গোড়ালি ঝামা দিয়ে ঘষে নিন। নরম ব্রাশ দিয়ে হাত ও পায়ের ত্বক আলতো করে ঘষে নিন। দুই দিন অন্তত এটি করতে হবে। ১৫ দিন অন্তর বিউটি পার্লারে গিয়ে ম্যানিকিওর—পেডিকিউর করাতে হবে। শীতে হাত—পায়ের উপযোগী ভালো কোনো ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুণ। পা ফাটা বা হাতের তালুর ত্বক রুক্ষ হয়ে গেলে গ্লিসারিন, ভ্যাসলিন, ভিটামিন ই ক্যাপসুল লাগিয়ে রাখুন সারা রাত। মোজা পরেও ঘুমাতে পারেন। তবে বেশি সমস্যা হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। আরেকটি বিষয় হলো, গোসলের পরপরই সারা শরীরে ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতে হবে। ধুলোবালো বা ময়লা জমে চুলের ত্বকে। মৃদু ধরনের (মাইন্ড) শ্যাম্পু ব্যবহার করুণ প্রতিদিন। শীতে আসল কাজ হলো চুল পরিস্কার রাখা। তাহলে খুশকিও দেখা দেবে না। সপ্তাহে এক দিন তেল দিয়ে মাথার ত্বক ম্যাসাজ করতে হবে। ময়েশ্চাতাইজার যুক্ত শ্যাম্পু ও ময়েশ্চারাইজার যুক্ত কন্ডিশনার ব্যবহার করুন চুলে। শীতে মেহেদী বা হেনা সরাসরি চুলে না দিয়ে তাতে টকদই মিশিয়ে নিতে পারেন। এ ছাড়া মেয়োনেজ, পাকা কলা ব্যবহার করা যেতে পারে। বেশি করে পানি খেতে হবে। শীতে শাক—সবজি, ফলমূল খেলে ত্বক এমনিতেই ভালো থাকবে।

About Syed Rubel

Creative writer and editor of amar bangla post. Syed Rubel create this blog in 2014 and start social bangla bloggin.

Check Also

নববধূদের ব্লাউজের ডিজাইন

নববধূদের ব্লাউজের ডিজাইন-১১-২০

নতুন ৫৪টি নববধূদের ব্লাউজের ডিজাইন বা নকশা দেখুন। টপ ৫৪ টি ব্লাউজের নকশা থেকে এই …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Optimization WordPress Plugins & Solutions by W3 EDGE