Home / যৌন জীবন / যৌন বিষয়ক নিবন্ধন / ছেলে মেয়েদের যে গোপনীয় বিষয় গুলো না জানলে নয়!

ছেলে মেয়েদের যে গোপনীয় বিষয় গুলো না জানলে নয়!

নাবালক-নাবালিকাদের দেহে যৌবন আগমনের পর দেহে ও মনে ব্যাপক পরিবর্তন ঘটে। তখন ছেলেদের ও মেয়েদের এমন সব গোপনীয় বিষয় বা কথা সামনে হাজির হয় যা তারা সহজে বলতে পারেনা। ছেলেদের ও মেয়েদের গোপনীয় বিষয় কি তা জানুন এবং শিখুন ও জীবনে প্রয়োগ করুণ।

গোপনীয় কথা
ছবি : প্রতীকী।

নাবালক ও নাবালিকাদের যখন যৌবন লাভ করতে শুরু করে তখন তাঁদের মন-মানসিকতায় ও শরীরে নানান পরিবর্তন ঘটতে থাকে। আর তখন তাঁদের সামনে এমন কিছু গোপনীয় বিষয় প্রকাশ পায় যা অন্যদেরকে জিজ্ঞাসা করতে লজ্জাবোধ করে অনেকে আবার লজ্জায় মুখ লুকিয়ে ফেলে। তাই প্রত্যেক ছেলে মেয়েদের যৌবন লাভের পরবর্তী ঘটনা গুলোর সম্পর্কে সম্যক ধারণা রাখার প্রয়োজন এবং তার সাথে সদ্য যৌবনপ্রাপ্ত কিশোর-কিশোরীদের করনীয় কি হবে তাও জেনে রাখার প্রয়োজন।

আর তাই, আজ আপনাদের জন্য সদ্য যৌবন প্রাপ্ত ছেলে মেয়েদের কিছু গোপনীয় বিষয় জানাতে লিখতে বসেছি। এবং এই গোপনীয় বিষয় গুলোর সাথে আরো কিছু বিষয়বস্তু সংযুক্ত করেছি যাতে আপনাদের বুঝতে সহজ হয়।

সদ্য যৌবন লাভের ছেলেদের গোপনীয় বিষয় সমূহ

০১। ছেলেদের যৌবন লাভের পরের ঘটনা : ছেলেদের দেহে যৌবন লাভের পর তার মন মানসিকতায় ব্যাপক পরিবর্তন ঘটতে শুরু করে। মুখে দাড়ি গোঁফ গজানোর সাথে বগলের ও নাভির নিচে বা পুরুষাঙ্গের উপরি অংশে লোম গজাতে শুরু করে। মেয়েদের প্রতি আকর্ষণ জাগতে শুরু করে। মেয়েদের গোপ্তাঙ্গ দেখলে যৌন উত্তেজনা বোধ করে। বীর্যথলিতে অতিরিক্ত বীর্য জমা হবার ফলে ঘুমের ঘোরে বীর্যপাত ঘটে। যাকে বলা হয় স্বপ্নদোষ। বীর্যথলিতে অতিরিক্ত বীর্য জমা হবার ফলে কাপড়ের ঘর্ষণেই লিঙ্গ উত্তেজিত হয়ে বীর্যপাত ঘটতে পারে। তবে এতে ঘাড়বার বা দুশ্চিন্তাগ্রস্থ হবার কিছু নেই এবং এতে লজ্জিত হবার কিছু নেই। কেননা এটাই যৌবনের ধর্ম। বেশি মাত্রায় স্বপ্নদোষ হলে ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে।

আরো জানুন :  ঘুমের ঘোরে বীর্যপাত হলে যা করবেন।

আরো জানুন : যৌন উত্তেজনায় বীর্যপাত হলে যা করবেন।

০২। লোম পরিষ্কার : বগলের ও নাভির নিচের অবশ্যই পরিষ্কার করতে হবে। সপ্তাহ দুই সপ্তাহ পর বগলের ও নাভির নিচে লোম পরিষ্কার করতে হবে। ইসলামের নির্দেশনা অনুযায়ী ৪০ দিনের ভিতরে বগলের ও নাভির নিচের লোম পরিষ্কার করে পরিচ্ছন্ন হতে হবে।

আরও পড়ুন : ইসলামে যৌন কেশ পরিস্কার বিধান

০৩। নিষিদ্ধ কাজ : যৌবন লাভের পর ছেলেদের মনে নিষিদ্ধ কাজের প্রতি আগ্রহ বেড়ে যায়। বন্ধুদের পাল্লায় পড়ে মেয়েদের নগ্ন ছবি কিংবা নীল ছবি দেখে এবং হস্তমৈথুন করে নিজের যৌবনের ১৩ টা বাজিয়ে দেয়। খারাপ বন্ধুদের কবলে পড়ে সেক্সুয়াল সম্পর্কে সক্রিয় হয়ে পড়ে। খারাপ বন্ধুদের পাল্লায় পড়ে খারাপ মেয়েদের সাথে সেক্সুয়াল সম্পর্কে একটিভ হয়ে অকাল মৃত্যুর দিকে ধাবিত হয়।  তাই যেসব বন্ধু ও সঙ্গি সাথীগণ এসব কাজে জরিত তাঁদের কে পরিত্যাগ করা প্রয়োজন।

আরও পড়ুন : পর্ণ বা নীল ছবি দেখার ক্ষতি

আরও পড়ুন ঃ খারাপ মেয়েদের সেক্সুয়াল সম্পর্কে করার ক্ষতি

০৪। প্রেম ভালোবাসা : ছেলেদের দেহে যৌবন লাভের পর নারীর প্রতি আকর্ষণ বেড়ে যায় এবং নারীদেরকে কাছে পেতে মন প্রবল আগ্রহী হয়ে ওঠে। চলার পথে কোন মেয়েকে দেখে গল্প-ছবির মতো মনে প্রেম উদিত হতে পারে কিংবা মন কোনো মেয়ের প্রেমে পড়ে যেতে পারে। যার ফলে আগামীর জীবন হতে পারে বিষাদময়। তাই চলার পথে নিজের দৃষ্টিকে সংযুক্ত করতে হবে।

০৫। অন্তার্বাস ব্যবহার : যৌবন লাভের পর ছেলেদের পুরুষাঙ্গ ঘর্ষণের ফলে, অথবা টিভি কিংবা ছবি ফলে পুরুষাঙ্গ শক্ত হয়ে যেতে পারে। তাই লজ্জাজনক ঘটনা এড়াতে আন্ডারওয়ায় ব্যবহার করুণ।

মেয়েদের গোপন বিষয় সমূহ…

নাবালিকা মেয়েদের দেহে যৌবন লাভের পর তাঁদের মন-মানসিকতা ও শরীরে পরিবর্তন ঘটতে শুরু করে। এসব ঘটনায় করণীয় কি হবে তা নিচে তুলে ধরা হলো।

০১। মাসিক বা ঋতুস্রাব :  মেয়েদের দেহে যৌবন লাভের পর মাসিক বা ঋতুস্রাব শুরু হয়। ঋতুস্রাব শুরু হলে যোনিপথ দিয়ে রক্ত বের হয় এবং তার সাথে তলপেটে ব্যথা করতে পারে। তবে রক্ত দেখে ভয় কিংবা লজ্জা পাবার কোন কারণ নেই। কেননা এটি মেয়েদের শরীরবৃতীয় প্রাকৃতিক বিষয়ই। এটি প্রতিমাসেই একবার করে হয় ৩ দিন থেকে শুরু ৫ দিন, কারোর ৭ এবং আবার কারোর ১০ দিন পর্যন্ত স্থায়ীত্ব থাকে। তবে ১০ দিনের বেশি কারোর ঋতুস্রাব চললে তাঁকে অবশ্যই ডাক্তারের শরাপন্ন হতে হবে এবং এটা মাসিক না বলে রোগ হিসেবেই অভিযুক্ত করতে হবে।

মাসিক চলাকালি সম্পর্কের আরো ঘটনা ও জানতে নিচের তালিকা দেওয়া আর্টিকেল গুলো পড়তে হবে।

  1.  মাসিক স্রাব হলে করনীয় সমূহ
  2.  মাসিকের সময় তলপেটে ব্যথার কারণ ও করনীয়
  3. মাসিকের যে ৭ টি সমস্যায় ডাক্তারের পরামর্শ খুবই প্রয়োজন

০২। দেহের পরিবর্তন : নাবালিকা মেয়েদের দেহে যৌবন লাভের পর তাঁদের দেহে ব্যাপক পরিবর্তন ঘটতে শুরু করে। স্তনের আকার বৃদ্ধি পেতে শুরু করে। কণ্ঠনালী মিষ্টি হতে শুরু করে, দেহের সৌন্দর্য বৃদ্ধি পেতে শুরু করে এবং চেহারায় মায়াবীভাব ফুটে উঠে। তাই পুরুষদের নজর এড়াতে দেহাঙ্গ পুরো পুরি ঢেকে চলাফেরা করতে হবে। নয়তো লম্পট পুরুষদের কুদৃষ্টি পড়তে পারে। মুসলিম নারীর উপর পর্দা করা ফরয। আপনি যদি মুসলিম না হোন তবু শালীনতার সহীত চলাফেরা করুণ, এতে আপনার  জন্য মঙ্গল  ও কল্যাণকর ভূমিকা রয়েছে।

আরও পড়ুন : পর্দা নারীর দূর্গ ও ইজ্জত রক্ষাকারী ঢাল

০৩. বগলের ও লজ্জাস্থানের লোম : মেয়েদের দেহে যৌবন লাভের ছেলেদের মতো মেয়েদের বগলের ও নাভির নিচে বা যোনির ভগের উপরে লোম গজাতে শুরু করে। সপ্তাহ কিংবা দুই সপ্তাহ এবং সর্বোচ্চ ৪০ দিনের ভিতরে বগলের নিচের ও লজ্জাস্থানের নিচের লোম পরিষ্কার করে পরিচ্ছন্ন হতে হবে। আরও জানতে ছেলেদের বিভাগের ২ নম্বর আর্টিকেলটি পড়ুন।

আরও পড়ুন ঃ লজ্জাস্থানের লোম পরিস্কারে কি ব্যবহার করবেন, ব্লেড নাকি লোমনাশক ক্রীম?

০৪। প্রেম ভালোবাসা  : মেয়েদের দেহে যৌবন লাভের তাঁদের মনেও পুরুষের প্রতি প্রেম ভালোবাসা জাগ্রত হয়। ছেলেদের মতো মেয়েদের মনের কাছে পাওয়ার আগ্রহ বেড়ে যায়। ফলস্বরূপ ছেলেদের সামন্য প্রচেষ্টার ফলে তাঁরা পটে যায়। মেয়েদের এ সময়টাতে খুব সতর্ক থাকতে হবে এবং নিজের চরম ক্ষতি ঠেকাতে কঠিন পদক্ষেপ নিতে হবে। নয়তো পটে গেলেন তো নিজের সতীত্ব হারালেন যা কখনো ফেরত পাবার যোগ্য নয়। নিজেদের প্রেম ভালোবাসাকে যতই পবিত্র বলেন না কেনো অপবিত্রতা নারীকে ছুঁয়ে যাবেই। প্রেম করবেন, অথচ প্রেমিককে  দেহ দান করবেন না, এসব লাইলি মজনুর প্রেম কাহিনীর ইতিহাস ভুলে বাস্তবতায় আসুন।

আরো পড়ন : প্রেম ভালোবাসা

০৫. অন্তার্বাস ব্যবহার :  নারীর দেহে বৃদ্ধমান স্তন্দ্বয়কে সুগঠিন রাখতে এবং ঝুলে যাওয়া ক্ষতির প্রভাব থেকে রক্ষা করতে অন্তার্বাস (ব্রা বা বেসিয়ার) ব্যবহার করা উচিৎ। সঠিক মাপের অন্তার্বাস ব্যবহার করার ফলে স্তনকে সুগঠিত রাখবে না বরং তার সাথে আপত্তিকর ঘটনা থেকে রক্ষা করবে।

আরও পড়ুন ঃ মুসলিম মেয়েদের ব্রা-পেন্টি পড়া কি জায়েয?

প্রিয় পাঠক-পাঠিকা, আমাদের বই, আর্টিকেল, গল্প ও কবিতা পড়ে আপনার কাছে ভালো লাগলে শেয়ার করে আপনার বন্ধুদেরকে সাহায্য করুণ। আপনার মতামত জানাতে অবশ্যই কমেন্ট করুণ। আপনার মোবাইলে ম্যাসেজের মাধ্যমে আমাদের আপডেট পেতে আমাদের ফোন নাম্বার আপনার মোবাইলে সেভ করে নিন।

About Syed Rubel

Creative writer and editor of amar bangla post. Syed Rubel create this blog in 2014 and start social bangla bloggin.

Check Also

হায়েয

হায়েয কি! অবস্থায় স্ত্রী সহবাস সংক্রান্ত কিছু কথা

বালেগ হওয়ার পর প্রত্যেক মাসে স্বাভাবিক নিয়ামানুসারে স্ত্রীলোকের যৌনাঙ্গ দিয়ে যে রক্তস্রাব বের হয় একে …

One comment

  1. wonderful suggest…

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *