Home / যৌন জীবন / যৌন জিজ্ঞাসা (প্রশ্ন ও উত্তর) / প্রশ্নঃ কুমারী মেয়ে চেনার উপায় কি

প্রশ্নঃ কুমারী মেয়ে চেনার উপায় কি

যাদের মনে কুমারী মেয়েদের চিনার কৌতুহল আছে, তারা এই প্রশ্নের উত্তরটি সম্পূর্ণ ভাবে পড়ুন। অল্প পড়ে চলে যাবে না। লেখাটি একটু বড় তাই পড়তে  একটু সময় লাগবে।

পূর্ণ প্রশ্নঃ কুমারী মেয়ে চেনার উপায় কি? আমি কি করে বুঝবো বিবাহের আগে আমার স্ত্রী কোন পুরুষের সাথে প্রেমের সম্পর্ক জড়িয়ে যৌন মিলন করেছে কি না।

আমার বাংলা পোস্ট.কমের পূর্ণ উত্তরঃ গত কয়েক মাস যাবত শতাধিক ব্যক্তি ম্যাসেজ করে জানতে চেয়েছেন তার স্ত্রী বিবাহের পূর্বে অন্য কোনো পুরুষ অথবা প্রেম করতে গিয়ে প্রেমিকের সাথে সেক্স করেছেন কি না তা জানতে চেয়েছেন।

তাঁর পাশা-পাশি মেয়েরা এর বিপরীত প্রশ্ন আমাদের কাছে ছুড়ছেন। এখানে প্রশ্ন হচ্ছে তারা কেনো কুমারিত্ব নিয়ে এতো ভাবছেন আর কেনোইবা এমনটি জানতে চাচ্ছেন? এর পেছনের কারণ কি?

এই প্রশ্নের উত্তর হচ্ছেঃ বাংলা সেক্স ভিডিও’র প্রভাব। আজকালকার ছেলেরা গান লোডের আড়ালে অবাধে সেক্স ভিডিও মেমোরিতে লোড করতেছে। যেখানে আছে আমাদের দেশেরেই অসংখ সেক্স ভিডিও। যার নাম থাকে বাংলা সেক্স ভিডিও। আমাদের অনুসন্ধানের এটি বের হয়েছে এসেছে। আমরা এ সম্পর্কে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত করবো।

যারা এ ধরনের প্রশ্ন করতেছেন তাদের মধ্যে আবার অনেকেই আছে যারা প্রেমের ফাদে ফেলে মেয়েদের সাথে এই বিবাহ বহিঃভুর্ত কাজটি করেছেন। যেসব ছেলেরা একাজ গুলি করতেছে, তার মনে তো এধরনের প্রশ্ন জাগবেই-আমি যাকে বিবাহ করবো সেও কি আমার মতো এরকম জঘন্য নষ্টামি অন্য পুরুষের সাথে করেছে কি না?

কুমারি মেয়ের ছবি
যে মেয়ে ভালোবেসে নিজের সব কিছু প্রেমিকের কাছে সপে দেয়, একদিন তাকেও প্রেমিকের কাছে নিজের সতীত্বের প্রমাণ দিতে হয়। অথচ সে প্রেমিক ছেলেই তার প্রথম সতীত্ব হরণ করেছে।

কুমারীত্ব চেনার প্রশ্ন শুধু ছেলেরা করছে না বরং মেয়েরাও করতেছে। মোবাইলে ভিডিও দেখার সুবিধার কল্যাণে মেয়েরাও এই সব সেক্স ভিডিও দেখতেছে। তার সাথে ইন্টারনেট তো আছেই। যেসব মেয়েরা লজ্জা শরমের কারণে গান লোডের দোকানে গিয়ে এই সব ভিডিও চাইতে পারে না তারা ইন্টারনেট থেকে খুঁজে বের করে নেয়। এটা আমি প্রমাণও পেয়েছে আমার এলাকার একটি মেয়ে মোবাইলে ব্রাউজার ইতিহাস পরীক্ষা করে। আরেক মেয়ের মেরোরি কার্ড পরীক্ষা করে তো অসংখ্য ভিডিও পেয়েছি। ছেলেদের মোবাইলে তো এগুলি অহরহ পাওয়া যায়। এমনকি ৪০+ বছরের পুরুষদের মোবাইলেও। এখানে একটিও বিষয় খুব ভয়াবহ যে, বিয়ের আগেই তরুণ তরুণীদের মধ্যে পারস্পরিক অবিশ্বাস ঢুকে যাচ্ছে। যা স্বামী-স্ত্রী মধ্যে অশান্তির কারণ হয়েছে দাঁড়িয়েছে।

কুমারী মেয়ে চেনার উপায় সমূহ

কুমারী মেয়ে চেনার জন্য সাধারণ তেমন ভালো কোনো উপায় নেই। তবে আপনি কিছু পদ্ধতি প্রয়োগের মাধ্যমে কুমারী মেয়ে চিনে নিতে পারেন।

১. যোনিপথ পরীক্ষার দ্বারা কুমারীত্ব বুঝার উপায় সমূহ

ক. ল্যাবিয়া মেজরা অর্থাৎ বাইরের পাপড়ি প্রায় সম্পূর্ণ ভাবে একসাথে লেগে থাকবে এবং যোনিমুখ দেখা যাবেনা।
খ. ল্যাবিয়া মাইনরা অর্থাৎ ভিতরের পাপড়িও সম্পূর্ণভাবে বন্ধ থাকবে এবং ল্যাবিয়া মেজরা দিয়ে ঢাকা থাকবে পুরোটাই। ল্যাবিয়া মেজরা না সরালে দেখা যাবেনা।
গ. কুমারীর মেয়েদের সতিচ্ছেদ অক্ষত থাকে। যদিও অনেক কারনেই ছিঁড়ে যেতে পারে। এটি ছিঁড়লে সাধারণত রক্তক্ষরণ হয়।
ঘ. ল্যাবিয়া মাইনরার নিচের প্রান্ত একত্রে থাকবে।
ঙ. ক্লাইটরিস/ক্লিটোরিস খুব ছোট এবং এর আবরণকারী চামড়াও পাতলা হবে।
চ. যোনিপথ সরু এবং ভিতরের ভাঁজগুলি কম মসৃণ হবে। ভাজ অনেক বেশি হবে।

নোটঃ অনেক সময় অনেক মেয়ের কয়েকবার যৌনমিলনের পরেও তাদের সতীচ্ছদ অক্ষত থাকে। যাকে নকল ভার্জিন বা কুমারীত্ব বলা হয়। এমনটি হয় একারণে যে অনেক মেয়েদের সতিচ্ছিদের পর্দা পুরো থাকে। যার কারণে সঙ্গম করলেও তা না ছিড়তে পারে। এমন কি তা অপারেশন করে নিতে হয়।. তবে এর হার অনেক কম।

২. স্তন পরীক্ষার দ্বারা কুমারীত্ব বুঝার উপায় সমূহ

ক. স্তন ছোট হবে।
খ. চ্যাপ্টা হবে, গোল নয়।
গ. দৃঢ় হবে, তুলতুলে নয়।
ঘ. নিপলের চারপাশে যে গাঢ় অংশ থাকে তার রঙ গোলাপি থেকে হালকা বাদামী রঙ এর মতো হবে (কম গাঢ় রঙ হবে) এবং এই অংশ আয়তনে ছোট হবে।
ঙ. নিপলের আকার ছোট হবে।

সাধারণত এ সকল পদ্ধতির মাধ্যমেই একটি মেয়ের কুমারীত্ব চিহ্নিত করা যায়। তবে যেসব মেয়ে বেশি খেলাধুলা/ শরীরচর্চা করে অথবা সাইকেল/মোটর সাইকেল চালায়, ঘোড়ায় চড়ে এবং হস্তমৈথুন করে কিংবা কৃত্রিম উপায়ে যৌনতা উপভোগ করে তাদের সতীচ্ছেদ পর্দা ছিঁড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে।

পরামর্শঃ স্ত্রীর সাথে প্রথম মিলনে রক্তপাত না হলেই ভাবার কোনো কারণ নেই যে আপনার স্ত্রী কুমারীত্ব হারিয়ে ফেলে বা তাঁর সতীত্ব নষ্ট করে দিয়েছে। কারণ পৃথিবীতে এমন ঘটনাও ঘটেছে যে, স্বামীর সাথে মাসের পর মাস সঙ্গম করার পরেও স্ত্রীর সতীচ্ছদ অক্ষত রয়ে যায়। আবার অনেক নারীর বেলায় দেখা গেছে তারা বিয়ের আগে কখনো সেক্স করেনি, কিন্তু বিয়ের পর স্বামীর সাথে প্রথম মিলনের সময় রক্তক্ষরণের ঘটনা ঘটেনি। সেসব মেয়েদেরকে ডাক্তারী পরীক্ষা করানো হলে তারা পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়। অতএব, স্ত্রীর সাথে  প্রথম মিলনের রক্তক্ষরণই তাঁর সতীত্বের প্রমাণ নয়।  প্রথম মিলনে রক্তক্ষরণ হলে মেয়েটি কুমারী বা সতীসাধ্বী নারী এসব পুরোনো দিনের কুসংস্কার। আধুনিক বিজ্ঞানের যুগে এসবের কোনো ভিত্তি নেই।

আর সব মেয়েদের যোনিপথের সাইজ সমান নয়। যেমনিভাবে সব পুরুষের লিঙ্গের আকার একই মাপের নয়। বংশগত বৈষ্টির কারণে ছেলেদের লিঙ্গের মতো মেয়েদের যোনিপথের গভীরতাও কম বেশি হয়ে থাকে এবং যোনি কয়েক প্রকারের থাকে। পাকিস্তানের যৌন লেখক মুফতী আল্লামা হাকীম আশরাফ আমরহী তাঁর “একান্ত নির্জনে গোপন আলাপ” বইতে ৪ প্রকারের যোনিপথের কথা লিখেছেন। দেখুন তাঁর বইয়ে লিখিত ঃ নারীর যৌনাঙ্গের প্রকারভেদ শীর্ষক আর্টিকেলটি। আর আমাদের নতুন লেখিকা @পুজা দাস তিনি তাঁর এক আর্টিকেলে মেয়েদের যোনির ২৮ টি প্রকারের কথা উল্লেখ করেছিলেন। দুর্ভাগ্যবশত এই মূহুর্তে তাঁর লেখিত যৌন আর্টিকেলটি বর্তমানে আমার বাংলা পোস্ট.কম এ উপলব্ধ নেই। ডাটাবেসের সমস্যার কারনে এটি নষ্ট হয়ে গেছে। তিনি যাতে আবারো নারীর যোনির ২৮ টি প্রকারের ভেদের নাম লেখাটি এখানে প্রকাশ করেন তাঁর জন্য আমি অনুরোধ জানাবো।

উপদেশঃ আপনি যদি সতীনারী বা কুমারী নারীকে বিবাহ করতে চান তাহলে আপনাকেও কুমারী বা সৎচরিত্রের পুরুষ হতে হবে। কেননা, মহান আল্লাহ বলেছেনঃ তিনি কারোর উপর কোনো জুলুম করেন না। কারোর সাধ্যের বাহিরে কোনো অতিরিক্ত বুঝা চাপিয়ে  দেন না যা সে বহন করতে পারে না। ছলনার মাধ্যমে আপনি যদি কোন নারীর সতীত্ব নষ্ট করবেন, তো অন্যজনও আপনার সঙ্গীনির অনুরূপ ক্ষতি করবে। এরকম নজিরও দুনিয়াতে অহরহ আছে। সো কেয়ারফুল হোন।

উত্তর লিখেছেনঃ সৈয়দ রুবেল। প্রতিষ্ঠাতা ও সম্পাদকঃ আমার বাংলা পোস্ট.কম সামাজিক ব্লগ প্লাটফর্ম।

About Syed Rubel

Creative writer and editor of amar bangla post. Syed Rubel create this blog in 2014 and start social bangla bloggin.

Check Also

মেয়েদের দ্রুত সেক্স তোলার ওষুধ

প্রশ্নঃ মেয়েদের দ্রুত সেক্স তোলার কোনো ওষুধ আছে?

প্রশ্নঃ মেয়েদের দ্রুত সেক্স তোলার জন্য কোনো ওষুধ আছে? উত্তরঃ মেয়েদের দেহে দ্রুত যৌন উত্তেজনা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *