Breaking News
Home / ইসলাম / শিক্ষামূলক গল্প / হাতুড়ে ডাক্তারের কান্ড।

হাতুড়ে ডাক্তারের কান্ড।

একজন পীরের উদাহরণ হলো ঠিক যেন একজন ডাক্তার। ডাক্তার যদি হাতুড়ে হয় তাহলে রুগীর জান বাঁচানোর কষ্টকর। যেমন একটা প্রবাদ আছেঃ

মূর্খ ডাক্তার জানের বিপদ, মূর্খ মোল্লায় ঈমানের বিপদ।

অনেক মূর্খ পীর আছে তারা সব অনুসারীকে একই পাল্লায় ওজন করে। এ কারণে। এ মুরীদানদের সংশোধন এবং রূহানী উন্নতি হয় না।

যেমন এক মূর্খ ডাক্তারের ঘটনা বর্ণিত আছেঃ

ডাক্তারের রুগী দেখার জন্যে ডাকা হলো। সে রুগীর বাড়ি গিয়ে দেখে রুগীর শরীরে ভীষণ জ্বর। রুগীর হাত নিয়ে নাড়ী পরীক্ষা করতে লাগলো। নাড়ীতে হাত রেখেই সে বললো, “মনে হয় তুমি বেশি পরিমাণে তেঁতুল খেয়েছো।

রুগীটি সত্যিই তেঁতুল খেয়েছিল। তাই রুগ্ন ব্যক্তি অবাক হয়ে গেল যে শুধু নাড়ীতে হাত রেখে যা খেয়েছিলাম তা কি করে বললো। নিশ্চয় সে একজন খাঁটি ডাক্তার।

সুতরাং তাকে যথারীতি ফি দিয়ে বিদায় করে দিল।

ডাক্তারের সাথে তার একটি ছেলে থাকতো। সে তার পিতাকে জিজ্ঞেস করলো, “আপনি কিভাবে জানতে পারলেন যে, রুগীটি তেঁতুল খেয়েছিল?”

পিতা বললো, “রুগীর চৌকীর ণীচে তেঁতুলের খোসা দেখছিলা।

তাই আমি অনুমান করলাম যে সে তেঁতুল খেয়েছে।”

ছেলে ভাবলো ডাক্তারী করা তো সহজ কাজ! তাই সেও ডাক্তারী করতে শুরু করলো। একদিন এক হাঁপানি রুগীর বাড়ীতে গিয়ে দেখে তার চৌকীর নীচে ছিড়া জুতা। তখন পিতার চিকিৎসা পদ্ধতি অনুযায়ী সে রুগীর নাড়ীতে হাত রেখে বলতে লাগলো, “মনে হয় আপনি ছিড়া জুতা খেয়েছেন তাই আপনার রোগ বৃদ্ধি পেয়েছে।”

একথা শুনে সবাই তো অবাক। দূর-দূর বলে সবাই তাকে তাড়িয়ে দিল।

আজকাল পীরদের অবস্থাও এরকম হয়ে গেছে। সবাইকে একই অজিফা, একই ব্যবস্থা দিয়ে বিদায় করে দেয়। তাছাড়াওউপ সম্পর্কে অঞ্জতাই এসবের কারণ। এ ধরনের পীর সাহেবগণ তাছাওউফকে ভুল বুঝিয়ে তাছাওউফের বদনাম করেছে।

তাছাওউফের যে-খাকীকত নবী করীম (সাঃ) এবং তাঁর সাহাবাগণের জামানায় ছিল তা আজকাল লোকেরা ভুলে গিয়েছে।

                 (আল-এফাযাতুল ইয়াউমিয়্যাহ)  

About Syed Rubel

Creative writer and editor of amar bangla post. Syed Rubel create this blog in 2014 and start social bangla bloggin.

Check Also

রুটি চোরের পরিনতি

এক ব্যক্তি হযরত ঈসা (আঃ)-এর সাথে সফরে রওয়ানা হলো। হযরত ঈসা (আঃ)-এর সাথে তিনটি রুটি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *