Breaking News
Home / বাংলা লাইফ স্টাইল / কখনো অন্যের সমালোচনা করবেন না

কখনো অন্যের সমালোচনা করবেন না

সমালোচনাজন জীবনে ডিসরেলির সবচেয়ে বড় প্রতিদ্বন্দ্বি ছিলেন বিরাট গ্ল্যাডস্টোন।

সাম্রাজ্যের যে কোন তর্কের বিষয় নিয়েই দুজনে লড়াই করতেন। অথচ তাদের দু’জনেরই জীবনে একটা মিল ছিল, আর তা হল তাদের সুখী ব্যক্তিগত জীবন।

উইলিয়াম আর ক্যাথরিন গ্ল্যাডস্টোন ঊনষাট বছর, প্রায় তিন কুড়ি বছর উজ্জ্বল বিবাহিত জীবন কাটান। সাধারণ জীবনে প্রচন্ড ব্যক্তিত্ব সম্পন্ন গ্ল্যাডস্টোন কোন দিনই স্ত্রীর সমালোচনা করেননি।

ক্যাথরিন দি গ্রেটও তাই করতেন। তিনি কখনই স্বামীর সমালোচনা করেননি।

ছোটদের কখনও সমালোচনা করার কথা নিশ্চয়ই আপনারা ভাবেন…হয়তো ভাবছেন আমি বলবো সমালোচনা করবেন না। না, আমি তা বলবো না। আমি শুধু বলবো তাদের সমালোচনা করার আগে কেবল আমেরিকার সাংবাদিকের একটি বিখ্যাত লেখা পড়তে ‘ফাদার ফরগেটস’। এটা বহুবার উদ্ধৃত হয়েছে। সেটা ‘রিডার্স ডাইজেস্ট থেকে তুলে দিচ্ছিঃ

‘শোন ছোট্ট সোনা, আমি তোমাকে যখন বলছি তুমি ঘুমোচ্ছ। আমি তোমাকে বকাবকি করেছি, আমি তোমার ঘরে চুপি চুপি এসেছি একা। তোমার একখানা হাত তোমার গলার তলায়, তোমার সোনালী চুল ঘামে ভিজে কপালের মধ্যে আটকে রয়েছে। এখন আমি দোষীর মতই তোমার কাছে এসেছি।

আমি এই কথা গুলোই ভাবছিলাম। আমি তোমার প্রতি কত বিরক্ত বোধ করেছি। তুমি স্কুলে যাওয়ার আগে তোমাকে খুব বকেছিলাম কারণ তুমি সব খাবার ছড়িয়ে ফেলেছিলে। তারপর তোয়ালে দিয়ে মুখ না মুছে কেবল তোয়ালেটা মুখে ছুঁয়েছিলে। তুমি তোমার জুতো সাফ করোনি বলেও বকাবকি করেছি।

সকাল বেলাতে প্রাতরাশের সময়েও তোমাকে বকেছিলাম। তুমি তোমার সব খাবার ছড়িয়ে ফেলেছিলে তারপর না চিবিয়ে সব খেয়ে ফেলেছিলে। তোমার চিবুক টেবিলে রেখেছিলে—রুটিতে খুব পুরু করে মাখন মাখিয়েছিলে। যখন তুমি আবার খেলতে যাও আর তখন আমি ট্রেন ধরতে ছুটেছিলাম তখন তুমি চেঁচিয়ে বসেছিলে ‘যাচ্ছি বাবা’।

একই রকম ব্যাপার ঘটেছিল বিকেলেও। রাস্তা দিয়ে যখন আসছিলাম তখন দেখেছিলাম তুমি রাস্তার মধ্যে হাঁটু রেখে খেলে চলেছে, তোমার মোজায় অনেক ফুটো। তোমাকে তোমার বন্ধুদের সামনে বেশ বকাবকি করে হাঁটিয়ে বাড়িতে নিয়ে আসি। মোজার অনেক দাম তুমি যদি নিজে কিনতে তাহলে বুঝতে পারতে বোধ হয়। বাবার কাছ থেকে তোমাকে কথাটা শুনতে হল। কথাটা মনে রেখ।

আরও পড়ুন : মানুষের মন জয় করার শততম পদ্ধতি

পরের কথাটা তোমার মনে আছে? এরপর আমি যখন লাইব্রেরীতে বসে পড়ছিলাম তুমি কেমন ভয় জড়ানো, বিষাদ মাখা চোখে এসে দাঁড়িয়েছিলে। আমি যখন কাগজ নামিয়ে তোমাকে দেখলাম তুমি আসার জন্য আমি যে বাঁধা পেলাম তাই অধৈর্য হয়ে খিঁচিয়ে বলেছিলাম, ‘কি হল, কি চাই?’

তুমি কিছুই বলোনি। শুধু কচি কচি হাত দুটো দিয়ে আমার গলাটা আদরের সঙ্গে জড়িয়ে ধরে আমাকে চুমু খেয়েই চলে গিয়েছিলে। তোমার হৃদয়ে সৃষ্টিকর্তা যে ভালবাসা দিয়েছেন তা শুকিয়ে যায়নি।

ছোট্ট সোনা, একটু পরেই আমার হাত থেকে কাগজটা পরে গেল। একটা অদ্ভুত রকম ভয় আমাকে কেমন যেন চেপে ধরতে চাইল। এ আমার কি রকম অভ্যাস! ক্রমাগত তোমার দোষ খুঁজে বেড়াচ্ছি, বকুনির অভ্যাসই আমাকে যেন পেয়ে বসেছে—তোমাকে শুধু বকুনিই দিয়ে চলেছি। এটা ঠিক নয় যে তোমাকে ভালবাসি না—আসলে তোমার কাছ থেকে অনেক বেশিই আমি চাইছিলাম। তোমার কাছ থেকে আমি যা চাইছিলাম তা আমার বয়সের মাপকাঠিতে। তোমাকে ঠিক সেই ভাবেই বিচার করেছি।

অথচ তোমার চরিত্রে রয়েছে কত ভালত্ব-কত সূম্মতা। তোমার ছোট্ট হৃদয়ে বিশাল পর্বত শিখরে ছড়িয়ে পড়া ভোরের আলর মতই বিরাট। তাঁর প্রমাণ তুমি ছুটে এসে আমাকে জড়িয়ে ধরে চুমু খেয়েছিল। আজ তাই তোমার কাছে অন্ধকারে হাঁটু মুড়ে বসেছি। আমার নিজেকে এই মূহুর্তে অপরাধী মনে হচ্ছে….।

এ আমার সামান্য অনুশোচনা মাত্র। তুমি জেগে থাকলে একথা তোমাকে বললে বুঝতে পারতে না। আমার জানা উচিত ছিল তুমি ছোট্ট একটা ছেলে মাত্র…।

কিন্তু কাল থেকে আমি হবো একজন সাহিত্যেকের বাবা এবং তোমার সঙ্গে ঠিক বন্ধুর মত ব্যবহার করবো। তোমার দুঃখের সময় আমি দুঃখ পাব এবং তোমার আনন্দের সময় আমিও আনন্দে সমান অংশীদার হব, কখনও রেগে কথা বললে তখনই নিজেকে সামলে নিয়ে ভুল সংশোধন করবো। ঠিক মন্ত্রের মত আমি আওড়াব তুমি যে একটি ছোট্ট শিশু মাত্র, এর বেশি কিছু নও।

আমি তোমাকে পূর্ণবয়স্ক একজন মানুষ ভেবে ভুল করেছি….। এখন আমি বুঝতে পারছি তুমি শুধু একটি শিশু মাত্র-ক্লান্ত হয়েই তুমি বিছানায় শুয়ে আছো।…আমি তোমার কাছে ঢের বেশি কিছু চেয়েছি সেটা চাওয়া আমার উচিত হয়নি।

লেখকঃ ডেলকার্নেগী

আরও পড়ুন : স্বামীর সমস্যায় স্ত্রীর সাহায্য 

Never be critical of others to be happy in life. Read our life style tips to enjoy your life.

#EnjoyLife #LifestyleTips #LifeHack 

রেটিং দিন

এই আর্টিকেলটি পড়ে আপনার কাছে কেমন লেগেছে তা আমাদেরকে জানাতে ৫ টি লাভ দ্বারা একটি রেটিং দিন। আপনার দেওয়া রেটিং আরো ভালো মানের আর্টিকেল রচনায় আমাদেরকে সাহায্য করবে।

লাইফ স্টাইল থেকে আরও
User Rating: 5 ( 1 votes)

About Syed Rubel

Creative writer and editor of amar bangla post. Syed Rubel create this blog in 2014 and start social bangla bloggin.

Check Also

অধীনস্থদের সঙ্গে

অধীনস্থদের সঙ্গে আপনার আচরণ

রাসূল (সাঃ) দাস দাসী ও অধীহীনস্থদের মনও যেভাবে দরকার সেভাবে জয় করে নিতেন। যেভাবে কথা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Optimization WordPress Plugins & Solutions by W3 EDGE